চার-ছক্কায় যত রান করে আউট হলেন আশরাফুল

গতকাল দিনের অন্যতম হাইভোল্টেজ ম্যাচে ফতুল্লায় জাতীয় ক্রিকেট লীগে (এনসিএল) ঢাকা বিভাগকে প্রথম ইনিংসে ২০৬ রানে গুটিয়ে দিয়েছিল ঢাকা মেট্রো। এরপর ব্যাট করতে নেমে প্রথম দিনের শেষ পর্যন্ত ১৩ ওভার মোকাবেলা করে কোন উইকেট না হারিয়ে ২৬ রান নিয়ে দিন শেষে করে ঢাকা মেট্রো।

আগের দিন টস জিতে ঢাকা বিভাগকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান ঢাকা মেট্রোর অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব। ব্যাটিংয়ে নেমে আরাফাত সানির দুর্দান্ত বোলিংয়ে নতজানু ঢাকা বিভাগ। টায়ার-২ এ ঢাকা ডার্বির এই ম্যাচের প্রথম ইনিংসে সাতটি উইকেট একাই নিয়েছেন আরাফাত সানি।

ঢাকা মেট্রোর হয়ে দুই উইকেট নিয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। এদিন ৩২ রানে নিজেদের প্রথম উইকেট (আব্দুল মজিদ, ১৭ রান) হারায় ঢাকা বিভাগ। এরপরে দলীয় ৬১ থেকে ৭৪ রানের মধ্যেই চারটি উইকেটের পতন ঘটে তাঁদের।

১০২ রানের মধ্যে ছয়টি উইকেট যাওয়ার পরে হাল ধরেন তাইবুর রহমান এবং মোশাররফ হোসেন। ব্যক্তিগত ২৭ রানে আরাফাত সানির শিকার হয়ে ফিরেছেন মোশাররফ।

এরপরে একাই লড়েছেন তাইবুর। আঁটটি চারে ব্যক্তিগত ৮৮ রান করে আশরাফুলের বলে দুর্দান্ত এক স্ট্যাম্পিংয়ে উইকেট হারান তিনি। শেষমেশ ঢাকা বিভাগ থামে ২০৬ রানে। ঢাকা মেট্রোর হয়ে বাকী উইকেটটি নিয়েছেন আবু হায়দার রনি।

দ্বিতীয় দিনের শুরুতে অবশ্য ব্যাট করতে নেমেই ওপেনার সৈকত আলিকে হারিয়ে বসে মেট্রো। ২২ রানে এই ওপেনারের বিদায়ের পর মার্শাল আইয়ুব এবং শামসুর রহমানও দ্রুত সাজঘরে ফেরেন। তিন ব্যাটসম্যানের বিদায় সাদমানকে সঙ্গ দিতে নেমেছেন মোহাম্মাদ আশরাফুল।

ক্রিজে নেমে লম্বা ইনিংসের আভাস দিয়েছিলেন এই ডানাহাতি ব্যাটসম্যান। ধৈর্য্যর চরম পরীক্ষা দিয়ে খেলে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু ৭০ তম ওভারের ১ম বলেই সুভাগত হোমের বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ক্যাচের ফাঁদে ধরা পড়েন আশরাফুল। শেষ হয় তার ১৩৮ বলে ৪টি চার ও ১ ছক্কার ৪৭ রানের দূর্দান্ত ইনিংসটি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*