অবশেষে তামিম নিজেই জানালেন তার সাথে সে কাকে ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসেবে চান

এশিয়া কাপের স্কোয়াড ঘোষণার আগে বাংলাদেশ জাতীয় দলের নিয়মিত ওপেনার তামিম ইকবালের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল, ওপেনিংয়ে সঙ্গী হিসেবে কাকে চান?পরিসংখ্যান ব্যাখ্যা করে তখন সৌম্য সরকারের পক্ষেই মত দেন তিনি। বলেন, ‘অভিজ্ঞ সৌম্যতে ভরসা আমার। কারণ সৌম্য এগ্রেসিভ, আমি ধীরগতির। এ দুই কম্বিনেশনে দল ভালো কিছু পেতে পারে।

মানতেই হবে, বাংলাদেশ ক্রিকেটে তামিম বেশ পুরোনো ও অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ওপেনার হলেও তার রান রেট মোটেও সুবিধার নয়। এজন্য ধরে খেলাকে দায়ী করেছেন অনেকে।প্রতিটি ম্যাচেই শুরু থেকে সার্বিক অবস্থা বিবেচনা করে খেলতে হয় দেশসেরা ওপেনারকে। তাই জুটিতে সঙ্গে হিসেবে নতুন কিংবা ধীর গতি সম্পন্ন কারো ওপর ভরসা রাখতে পারেন না তিনি।

কারণ জুনিয়ররা সবসময় চায় জাতীয় দলে স্থায়ী হতে। আর ধীর গতির তিনি তো আছেনই। এ জন্য এগ্রেসিভ সৌম্যের ওপরই ভরসা ছিল তার।কিন্তু দুঃখজনক ব্যাপার হলো, স্কোয়াড ঘোষণার পর তামিমের সেই চাওয়া-পাওয়া ধূলোতে মিশে গেছে। কারণ, এশিয়া কপের স্কোয়াডেই রাখা হয়নি তার পছন্দের সতীর্থকে।

এজন্য কথা উঠেছে, তাহলে এশিয়া কাপে তামিমের সঙ্গী কে? এক্ষেত্রে টেলেন্ডেড লিটন কুমার দাসকে এগিয়ে রাখছেন নির্বাচকরা। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে তামিমের সঙ্গে খেলেছেন তিনি।সৌম্যের বিপরীতে এনামুল ও লিটনকে ওপেনিংয়ে সুযোগ দেয়া হলেও কেবল লিটনই নিজের মান ধরে রাখতে সক্ষম হন। তাই আপাতত তামিমের সঙ্গে এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানকেই খেলতে হবে।

এদিকে গত বুধবার (৫ সেপ্টেম্বর) মিরপুর শেরে-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলন শেষে নিজের সার্বিক অবস্থা নিয়ে কথা বলেন লিটন কুমার দাস। বলেন, ‘অনেক দিন ওয়ানডে টিমের বাইরে থাকার পর এশিয়া কাপে সুযোগ পাওয়াতে নিজেকে অনেক ধন্য মনে হচ্ছে। আমি চেষ্টা করবো ভালো খেলার।’সর্বশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের টি-২০ ম্যাচে তামিমের সঙ্গে ওপেনিংয়ের সুযোগ মেলে লিটন কুমার দাসের। সেখানে ৩১ বলে ৬২ রানের দুর্দান্ত একটি ইনিংস খেলেন তিনি।

মূলত ভয় ডরহীন ম্যাচ খেলার জন্যই বেশ সুনাম কুড়িয়েছেন জাতীয় দলের এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। ‘অনেক ব্যাটসম্যান অনেকভাবে খেলতে ভালোবাসে। তবে আমি এগ্রেসিভলি খেলতে পছন্দ করি।’ যোগ করেন তিনি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*