বরের বয়স ৬৫, কনের ৬০ বিয়ে সমপন্ন

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার রাতে কাতলামারী গ্রামের পাত্রী সাহেরা খাতুনের বাড়িতেই এ বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। মুসলিম পারিবারিক আইন অনুযায়ী তাদের বিয়ের কাবিন রেজিষ্ট্রি করা হয় এবং বিয়ের দেনমোহর ধরা হয়েছে ১ লাখ টাকা।ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার ডাকাতিয়া ইউনিয়নের কাতলামারী গ্রামে ৬৫ বছরের বৃদ্ধ মাইনউদ্দিন ফকিরের সাথে ৬০ বছরের বৃদ্ধা সাহেরা খাতুনের বিয়ে হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
এ বিষয়ে ওই গ্রামের বাসিন্দা সোহেল রানা জানান, মাইনউদ্দিন ও সাহেরার বিয়ে দেখতে অনেকেই পাত্রীর বাড়িতে উপস্থিত হন। এ সময় কেউ কেউ আবার এই দুজনের বিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে লাইভ ভিডিও ধারণ করেন। আবার অনেকেই পাত্র-পাত্রীর সঙ্গে সেলফি তোলেন এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় আপ করেন।সোহেল রানা আরও জানান, বর মাইনউদ্দিন ফকিরের প্রথম স্ত্রী মারা গেছেন। তাদের সংসারে এখন ৫ ছেলে-মেয়ে রয়েছে। রয়েছে নাতি-নাতনিও। অন্যদিকে, কনে সাহেরা খাতুনেরও প্রথম স্বামী মারা গেছেন। তাদের সংসারেও আছে ২ ছেলে-মেয়ে। আছে নাতি-নাতনিও।

চাচা শ্বশুরের প্রেমে পাগল হয়ে ঘর ছাড়লেন বউমা

চাচা শ্বশুরের প্রেমে- ভাইপোর বউয়ের প্রেমে হাবুডুবু খেয়ে শেষপর্যন্ত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়লেন চাচাশ্বশুর (৫০)। পরিণাম, চাচাশ্বশুরের সঙ্গে ঘর বাঁধার আশায় পালিয়ে গেলেন বউমা। একেই বলে বিকেলে ভোরের ফুল।নিজের চেয়ে অনেক ছোট হাঁটুর বয়সী বউমা। হোক না ভাইপোর বউ, তাই বলে কি প্রেম হতে পারে না! শেষে কি না চাচাশ্বশুর ও বউমার প্রেমকাহিনী! তাও আবার পরিবারের নাকের ডগাতেই। এ ঘটনায় প্রেমিক যুগলের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছে পরিবার।

পেশায় ওঝা বীরেন্দ্র মাহাতো ও তাঁর বউমা ঊষা দেবীর প্রেমকাহিনী গ্রামবাসীরা মানতে পারছেন না। ঊষার স্বামী রবীন্দ্র মাহাতো জানিয়েছেন, তাঁর বউকে ফুসলিয়ে নিয়ে গিয়ে স্থানীয় পুরণদেবী মন্দিরে বিয়ে করেছেন চাচা। তারপর থেকেই দু’জনই লাপাত্তা। শুধু তাই নয়, ঊষা তাঁর চার সন্তানকেও সঙ্গে নিয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন রবীন্দ্র। জানা গেছে, এটাই প্রথম নয়।এর আগেও বীরেন্দ্রর বিরুদ্ধে ঝাড়ফুকের নামে গ্রামের নারীদের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ রয়েছে। তার জন্য পঞ্চায়েত বীরেন্দ্রকে আর্থিক জরিমানাও করে। ঘটনাগুলির জন্য বীরেন্দ্রর পরিবার গ্রামে বেশ অস্বস্তিতে ছিল।গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো এবার এই ঘটনা। লজ্জায় মাথা হেঁট বীরেন্দ্রর স্ত্রী ললিতা দেবী জানিয়েছেন, স্বামী বউমার সঙ্গে পালিয়ে বিয়ে করার ঘটনায় তাঁর মানসিক অবস্থা ঠিক নেই। বাড়ি থেকেও খুব একটা বের হতে পারছেন না পরিজনরা।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*