অভিনেত্রী পায়েলের হোটেল থেকে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

হঠাৎ করে জনপ্রিয় অভিনেত্রী পায়েলের রহস্যজনক ভাবে হোটেল থেকে লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ ।তবে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে তিনি আত্নহত্যা করেছেন ।তবে কি কারনে অাত্নহত্যা করেছেন এর সঠিক কারন এখনো জানা য়ায়নি ।ময়না তদন্তের পরে জানা যাবে মৃত্যের সঠিক রহস্য ।পশ্চিমবঙ্গের ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী পায়েল চক্রবর্তীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে তার।জানা গেছে, অভিনেত্রী পায়েল কলকাতার যাদবপুরের বাসিন্দা। মঙ্গলবার ভারতের শিলিগুড়ির একটি হোটেলে এসে উঠেছিলেন পায়েল। কথা ছিল পরের দিনই গ্যাংটকের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন তিনি। কিন্তু তা আর হয়নি। বুধবার সকালে ওই হোটেল রুম থেকে উদ্ধার করা হয় এই অভিনেত্রীর ঝুলন্ত দেহ।বুধবার সকালে হোটেল ছেড়ে যাওয়ার কথা বলেছিলেন পায়েল। তার কথামতোই সকাল সাতটা থেকেই তাকে ডাকাডাকি শুরু করেন হোটেলের কর্মীরা। কিন্তু সকাল এগারোটা পর্যন্ত তার দেখা না মেলায় উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন হোটেলের কর্মচারীরা। বারবার দরজা ধাক্কা দেওয়ার পরও কোন সাড়া না মেলায় তারা খবর দেন শিলিগুড়ি থানায়।

এরপর পুলিশ এসে রুমের দরজা ভেঙে ঘর থেকে উদ্ধার করে পায়েল চক্রবর্তীর ঝুলন্ত মৃতদেহ। পায়েলের এই রহস্যজনক মৃত্যুকে ঘিরে বর্তমানে চলছে তদন্ত। বিষয়টি আসলে হত্যা নাকি আত্মহত্যা তা খতিয়ে দেখবেন পুলিশ।কিন্তু ঝুলন্ত অবস্থায় অভিনেত্রীর মৃতদেহ উদ্ধারের পরও কেন তার মৃত্যু নিয়ে রহস্য? মূলত মঙ্গলবার রাতে হোটেল রুম থেকে চিৎকার করে ফোনে কথা বলতে শোনা যায় পায়েলকে। বোঝাই যাচ্ছিলো কারো সাথে রাতভর ঝগড়া করছিলেন তিনি। কিন্তু পুলিশ তাকে দরোজা ভেঙে উদ্ধারের পর পায়েলের ফোনটিই নাকি খুঁজে পাওয়া যায়নি। স্বাভাবিকভাবেই এই মৃত্যু ঘিরে রহস্য তৈরি হয়েছে।তবে পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, অভিনেত্রী পায়েল দীর্ঘদিন ধরেই নাকি মানসিক চাপে ভুগছিলেন ৷ দীর্ঘদিন ধরে টলিউডে কাজ করা সত্ত্বেও পার্শ্ব চরিত্রেই দেখা যেত থাকে ৷ এই নিয়ে মানসিক চাপও ছিল প্রবল ৷

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*